us senate office of public records android ear spy pro link press north carolina criminal law phone number directory assistance phone number in sql database greene county ohio property information

প্রকল্প সম্বন্ধে

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগ প্রতিষ্ঠিত ভাষা প্রযুক্তি ও গবেষণা পরিষদ বাংলা ভাষা ও ভাষা গবেষণার লক্ষ্যে বাংলা সাহিত্য সম্ভার অনলাইনে পাঠ ও ব্যবহারের জন্য ইউনিকোড সম্মত ভাবে উপস্থাপিত করতে ব্রতী হয়েছে। সমগ্র রবীন্দ্র রচনাবলী বাঙালি ও বাংলাভাষা-পাঠকদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা এই পথের প্রথম পদক্ষেপ। প্রথমে রবীন্দ্র রচনাবলী কেন, আশা করি এ প্রশ্ন কেউ তুলবেন না।

 

ভাষা-প্রযুক্তি ও গবেষণা পরিষদের এই অনলাইন রবীন্দ্র-রচনাবলী একটি বৃহত্তর প্রকল্পের প্রাথমিক অংশমাত্র। পরিষদ ক্রমে ক্রমে বাংলা সাহিত্যর সমস্ত ধ্রুপদি রচনাকে অনলাইনে আগ্রহী পাঠকসাধারণের কাছে পৌঁছে দেবার পরিকল্পনা নিয়েছে। এর মধ্যে কবিতা, গল্প-উপন্যাস, নাটক, প্রবন্ধ সবই অন্তর্ভুক্ত হবে, পাঠকের আকাঙ্ক্ষা অনুসারে, অন্যান্য উপাদানও (লেখকের ব্যক্তিগত জীবনতথ্য, রচনাসংক্রান্ত প্রাসঙ্গিক নানা সূত্র, চিঠিপত্র, সমকালীন ও পরবর্তী সমালোচনা ইত্যাদি) দেওয়ার চেষ্টা করা হবে। বিদ্যাসাগর, বঙ্কিমচন্দ্র, মীর মশার্‌রফ হোসেন থেকে শুরু করে সমস্ত মহৎ বাঙালি কবি, লেখক ও রচনাকে এই অনলাইন পরিসরে এনে দেওয়াই পরিষদের লক্ষ্য।

 

এই কাজ সম্ভব হয়েছে বহু মানুষের সহযোগিতায়।

 

রবীন্দ্র-রচনা ইউনিকোড সম্মত সংকলনের কাজটি পরিষদের হয়ে সম্পন্ন করেছেন বেঙ্গল কারিগরি ও বিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের গবেষক বন্ধুরা। এছাড়া এই ওয়েবসাইটকে সমৃদ্ধ করেছে আই আই টি খড়্গপুরের গবেষকরা রবীন্দ্রসঙ্গীত, স্বরলিপি ও অন্বেষণ (তথ্যান্বেষণ ব্যবস্থা) সংযোজনের মাধ্যমে । ম্যাটথ্রি ইমপেক্স পুরো প্রকল্পের কারিগরি সহায়তা করেছেন।

 

পশ্চিমবঙ্গের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী শ্রীবুদ্ধদেব ভট্টাচার্য ২রা ফেব্রুয়ারি ২০১০এ কলকাতা পুস্তকমেলা উপলক্ষ্যে এই অনলাইন রবীন্দ্র রচনাবলীকে পাঠকসাধারণের উদ্দেশ্য নিবেদন করেছেন। এই অনলাইন প্রকাশনা দিয়েই পশ্চিমবঙ্গ সরকার রবীন্দ্রজন্মের সার্ধশতবর্ষের উদ্‌যাপনের সূচনা করতে চেয়েছে।

 

এই রচনাবলীতে রবীন্দ্রনাথের মুদ্রিত সমস্ত রচনা ছাড়াও একশোটি গানের স্বরলিপি দেওয়া হয়েছে। ক্রমে এ পর্যন্ত লভ্য সমস্ত স্বরলিপিই সংযোজিত হবে। রবীন্দ্রনাথের চিঠিপত্রও, যতখানি পাওয়া গেছে, এর সঙ্গে দেওয়ার পরিকল্পনা আছে।

 

আমাদের এই রচনাবলীতে পাঠকের নিজস্ব প্রস্তাব, সংশোধন, সুপারিশ ইত্যাদি যোগ করারও একটি জানালা থাকছে, যা দেখে পরিষদ নিজেদের কাজের ভুলত্রুটি বুঝে নিয়ে এ পরিবেশনকে আরও নির্ভুল ও গ্রহণযোগ্য করে তুলতে পারবে।

 

আমরা জানি, অন্যান্য সংস্থাও রবীন্দ্রনাথকে অনলাইনে সহজলভ্য করার উদ্যোগ নিয়েছেন। এতে পাঠকেরই লাভ, বহু ভাবে তাঁরা রবীন্দ্রনাথের সঙ্গে সাক্ষাৎকারের সুযোগ পাবেন। দেশবিদেশে বাংলাভাষার সর্বোত্তম শস্য পৌঁছে দেওয়া এই ভাষা-বিপন্নতার যুগে আমাদের সকলের এক প্রধান দায়িত্ব ও কর্তব্য।

 

সারা পৃথিবীর বাংলা-পড়তে-পারা মানুষের জন্য ভাষা-প্রযুক্তি গবেষণা পরিষদ এ রচনাবলী উৎসর্গ করছে। রবীন্দ্রনাথের সুমহৎ মানবতাবোধ, বিশ্ববোধ ও জীবনভূমি আমাদের নিরন্তর সমৃদ্ধ করতে থাকুক।